গৌরনদী সংবাদ

পিঙ্গলাকাঠিতে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শতবর্ষী বটবৃক্ষ কর্তণ

প্রশাসনের অনুমতি ছাড়াই বরিশালের গৌরনদী উপজেলার পিংলাকাঠি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শতবর্ষী বটবৃক্ষ কেটে নিয়ে যাচ্ছে একটি প্রভাবশালী মহল। বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি যুবলীগ নেতা বাচ্চু সরদার পানির দরে বটগাছটি বিক্রি করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ নিয়ে ওই বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী-শিক্ষক ও অভিভাবকদের মাঝে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে। উপজেলা প্রশাসনের অনুমতি নিয়ে গাছ কাটার কথা দাবি করলেও প্রসঙ্গে এসএমসির সভাপতি কোন কাগজপত্র প্রতিনিধিকে দেখাতে পারেননি।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সরদার মো. আলাউদ্দিন জানান, উপজেলার দক্ষিণ পিংলাকাঠি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি ১৯৪২ সালে শতবর্ষী বটবৃক্ষকে ঘিরে প্রতিষ্ঠিত হয়। বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরা ওই বৃক্ষতলে ছায়া নিতো। সম্প্রতি একটি নতুন ভবন নির্মাণের বরাদ্দ পায় বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এ নতুন ভবন নির্মাণ করার জন্য প্রায় শতবর্ষী বটগাছটি কাটার জন্য এসএমসির কমিটির সভায় সিদ্ধান্ত অনুযায়ী রেজ্যুলেশন করা হয়। তাতে সিদ্ধান্ত হয় সরকারি অনুমোদন পেলে গাছটি বিক্রি ও কাটা হবে। কিন্তু বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি কাউকে কিছু না জানিয়ে অনুমতি ছাড়াই গাছটি বিক্রি করেন। এতে বিদ্যালয়ের ছাত্র শিক্ষক ও অভিভাবকদের মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।

একাধিক ছাত্রের অভিভাবকরা জানান, গাছটিকে রক্ষা করেও ভবন নির্মাণ করা যেত। কিন্তু ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি যুবলীগ নেতা বাচ্চু সরদার ক্ষমতার প্রভাব খাটিয়ে প্রায় শতবর্ষী বটগাছটি শনিবার থেকে কাটা শুরু করেছে। এ পর্যন্ত গাছের ৪টি বড় ডালপালা কেটে নিয়ে গেছে। গাছটি উপড়ে ফেলার জন্য গাছের গোড়ার মাটি খোঁড়া হচ্ছে।

ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি যুবলীগ নেতা বাচ্চু সরদার জানান, বরাদ্দকৃত নতুন ভবন নির্মাণ করতে বটগাছটি লাকড়ি ব্যবসায়ী আক্কাস হাওলাদারের কাছে ৫ হাজার ৭০০ টাকায় বিক্রি করা হয়েছে। এব্যাপারে গৌরনদী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মাসুদ হাসান পাটোয়ারী বলেন, স্কুল কর্তৃপক্ষ গাছ কাটার অনুমতি চেয়েছিল। কিন্তু তিনি অনুমতি না দিয়ে প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারকে তদন্তের জন্য সুপারিশ করেছেন।

আরও সংবাদ...

Leave a Reply

Back to top button