গৌরনদী সংবাদ

গৌরনদীর এক যুবককে নাশকতার মামলায় জড়িয়ে আদালতে চার্জশীট প্রদান করেছে পুলিশ

ঘটনার সময় বিদেশে কর্মরত থাকা সত্যেও বরিশালের গৌরনদীর কটকস্থল গ্রামের দেলোয়ার আকন নামের এক যুবককে নাশকতার মামলায় জড়িয়ে আদালতে চার্জশীট প্রদান করেছে পুলিশ। এতে হয়রানীর শিকার হয়েছেন ওই যুবক ও তার পরিবার। এ নিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। প্রশ্ন উঠেছে গৌরনদী থানায় কর্মরত ২ পুলিশ কর্মকর্তার ভূমিকা নিয়ে। দেলোয়ার আকন কটকস্থল গ্রামের মৃত আঃ জলিল আকনের পুত্র।

জানাগেছে ২০ দলীয় জোটের অবরোধ চলাকালীন গত ২৯ জানুয়ারী গভীর রাতে ঢাকা- বরিশাল মহাসড়কের গৌরনদীর কটকস্থল সরকারী প্রাইমারী স্কুলের সামনে একটি লবনবাহী ট্রাকে পেট্রোল বোমা মেরে অগ্নিসংযোগ করে কতিপয় দুবৃত্ত। এ ঘটনায় গৌরনদী থানার এস আই স্বপন কুমার হাওলাদার বাদী হয়ে ৩০ জানুয়ারী সকালে ওই এলাকার ৯ জনের নাম উল্লেখ সহ ১০/১৫ জন যুবককে আসামী করে বিশেষ ক্ষমতা আইনে গৌরনদী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। ওই সময় দেলোয়ার আকন মধ্যপ্রাচ্যের কাতারে গাড়ীর ড্রাইভার হিসেবে কর্মরত থাকা সত্যেও তাকে ওই মামলায় ৩ নম্বর আসামী করা হয়। মামলার তদন্তভার ন্যাস্ত করা হয় এসআই জুবায়ের হোসেনের ওপর। তিনিও তদন্ত না করেই দেলোয়ার আকনকে দোষী সাব্যাস্ত করে তড়িগড়ি করে একমাস আগে তার বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশীট দাখিল করেন। গত ২৫ মে দেলোয়ার দেশে এসে মামলার খবর জানতে পারেন। ওই মামলায় তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারী হওয়ায় তিনি এখন পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। ফলে বিপাকে পড়েছেন দেলোয়ার ও তার পরিবার।
দেলোয়ার ও অন্যান্য আসামীরা জানান,তারা নির্দোষ হওয়া সত্যেও পুলিশ তাদের মামলায় জড়িয়ে অযথা হয়রানী করছে। এ মামলাকে পুঁজি করে পুলিশ কর্মকর্তারা অর্থ-বানিজ্য শুরু করেছেন বলেও তারা অভিযোগ করেন।

এ ব্যাপারে মামলার বাদী এসআই স্বপন কুমার হাওলাদারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান ভুলক্রমে দেলোয়ার আকনকে আসামী করা হয়েছে তার নাম মামলার আইও চার্জশীট থেকে বাদ দিতে পারতেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই জুবায়ের হোসেন জানান আমি তড়িঘড়ি করে চার্জশীট প্রদান করেছি। দেলোয়ার আকন বিদেশে ছিল এটা আমার জানাছিলনা। তবে এই ২ পুরিশ কর্মকর্তা আর্থিক সুবিধা গ্রহনের কথা অস্বীকার করেন।

বিষয়টি নিয়ে গৌরনদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ সাজ্জাদ হোসেনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান এক মাস আগে এ মামলার চার্জশীট আদালতে পাঠানো হয়েছে। দেলোয়ার আকন ঘটনার সময় বিদেশে অবস্থান করে থাকলে সম্পুরক চার্জশীটের মাধ্যমে তার নাম বাদ দেয়া হবে বলে তিনি জানান।

এলাকাবাসী অভিযোগ করেন, কটকস্থলে লবনবাহী ট্রাকে অগ্নি সংযোগের মাত্র ৩ দিন পর গত ২জানুয়ারী ঘটনাস্থল থেকে মাত্র কয়েক’শ গজ দুরে বেজগাতি নামক স্থানে অন্য একটি পন্যবাহী ট্রাকে পেট্রোল বোমা মেরে অগ্নি সংযোগ করে দুবৃত্তরা । এতে ট্রাক ড্রাইভার নুর হোসেন ও হেলপার জাফর রাঢ়ী নিহত হন। এ ঘটনাকে আড়াল করতে পুলিশ বিষয়টিকে সড়ক দুর্ঘটনা বলে প্রচার চালায়। ওই ঘটনায় পুলিশ কোন মামলা পর্যন্ত নেয়নি।


ফেসবুকে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। Gournadi.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে Gournadi.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো পোষ্ট...

Leave a Reply