গৌরনদী সংবাদ

গৌরনদীর স্কুলছাত্রীকে অপহরণ করে আটকে রেখে ধর্ষণ, ধর্ষক গ্রেপ্তার

গিয়াস উদ্দিন মিয়াঃ অপহরণ করে ২৮ দিন আটকে রেখে বরিশালের গৌরনদী গালর্স স্কুল এন্ড কলেজের নবম শ্রেণীর ছাত্রীকে (১৪) ধর্ষণ করা হয়েছে। পুলিশ অভিযান চালিয়ে শনিবার রাতে ঢাকার আশুলিয়া থানা এলাকা থেকে অপহৃতা ধর্ষিত স্কুলছাত্রীকে উদ্ধার ও ধর্ষক সুলতান আহম্মেদকে (৩০) গ্রেপ্তার করেছে। গ্রেপ্তারকৃত সুলতান আহম্মেদ পটুয়াখালী জেলার মীর্জাগঞ্জ থানার আমলাগাছিয়া গ্রামের রশিদ গাজীর ছেলে।

গৌরনদী মডেল থানার ওসি মো. আলাউদ্দিন মিলন জানান, উপজেলার টিকাসার গ্রামের নানা ওহাব আলী হাওলাদারের বাড়িতে থেকে তার নাতনী (১৪) গৌরনদী গালর্স স্কুল এন্ড কলেজে নবম শ্রেনীতে লেখাপড়া করে আসছিল। ওই স্কুলছাত্রী গত ৫ মার্চ সকালে নানা বাড়ি থেকে স্কুলের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। পথিমধ্যে ওই স্কুলছাত্রী চরগাদাতলী এলাকায় পৌছলে বখাটে সুলতানের নেতৃত্বে বখাটে ৪-৫ জন যুবক ছাত্রীকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। এরপর অপহরণকারীরা স্কুলছাত্রীকে ঢাকার আশুলিয়া থানাধীণ একটি বাসায় ২৮দিন আটকে রেখে দিনের পর দিন ধর্ষণ করে সুলতান। এ ব্যাপারে ধর্ষিতার নানা ওহাব আলী হাওলাদার বাদি হয়ে গৌরনদী মডেল থানায় একটি অপহরণ ও ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। গোপণ সংবাদের ভিত্তিতে গৌরনদী মডেল থানার এস.আই মো. নজরুল ইসলাম আশুলিয়া থানা পুলিশের সহযোগীতায় শনিবার রাত সাড়ে ৮টায় আশুলিয়া থানার ইয়ারপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে অপহৃত ধর্ষিত স্কুলছাত্রীকে উদ্ধার ও অপহরণকারী ধর্ষক সুলতান আহম্মেদকে গ্রেপ্তার করে।


ফেসবুকে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। Gournadi.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে Gournadi.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো পোষ্ট...

Leave a Reply