বরিশাল

মানচিত্র থেকে মূছে ফেলার কৌশল আগৈলঝাড়ায় সরকারী খাল দখল করে পুকুর নির্মান

প্রবির বিশ্বাস ননী: বরিশালের আগৈলঝাড়ায় সরকারী খাল দখল করে পুকুর নির্মানের আভিযোগ উঠেছে এক প্রভাবশালীর বিরুদ্ধে । সরেজমিন ও স্থানীয় সূত্রে  জানাগেছে, উপজেলার রাজিহার ইউনিয়নের বাটরা হইতে রামানন্দেরআঁক মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের কোল ঘেষে দক্ষিন মূখি রাজিহার  গ্রাম প্রর্যন্ত সংযোগ খালটি প্রায় শত বছর পূর্বে  সরকারি অর্থায়নে খনন করা হয় বলে স্থানীয় বাসিন্দারা জানান।  এক সময় এই খাল দিয়ে নৌকায় যাতায়াত , পন্য সামগ্রি আনা নেওয়া, ফসলী জমিতে পানি সরবারাহ হত। কালের আবর্তে যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নত হওয়ায়  অনেক স্থানের মত এই গুরুত্ব পুর্ন খালটিও অবহেলায় পরিনত হয়। খালটি খনন না হওয়ায় মাটি ভরাট হয়ে অনেক স্থানে সমতল ভূমির রুপ নেয়। সুযোগ বুঝে স্থানীয় কতিপয় প্রভাবশালী ইতোপূর্বে  খালের একাধিক স্থানে ভরাট করে নিজেদের দখলে নেওয়ায় খালের চিত্র পাল্টে গেছে। সম্প্রতি রামানন্দেরআঁক গ্রামের মৃত হিরোলাল মন্ডলের ছেলে হরে কৃষ্ণ মন্ডল সরকারী এই খালটির বাটরা মূখি খালের সংযোগ স্থলে  পাইলিং দিয়ে মাটি ভরাট করে বাড়ি-পুকুর নির্মান শুরু করেছে। সংযোগ স্থলে মাটি ভরাটের কারনে খালটির দৃশ্যপট মানচিত্র থেকে মুছে যাবে। বন্ধ হয়ে যাবে চিরতরে কয়েটি ইরি-বোরো ব্লকের সেচ ব্যাবস্থা। একটি সূত্রে জানাগেছে মানচিত্র থেকে খালটি মূছে ফেলার কৌশলে সাম্প্রতিক (বিএস) ভুমি জরিপে একটি কুচক্রি মহল জরিপ কাজে নিয়োজিত অসাধু কর্তা ব্যাক্তিদের মাধ্যমে তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে।  এ বিষয়ে হরে কৃষ্ণ মন্ডলের কাছে জানতে চাইলে তিনি নিজের জমি দাবী করে মাটি ভরাট করছেন বলে জানান। খাল ভরাটের ঘটনায় স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, শিক্ষক, সাংকৃতিক কর্মি , সুধি সমাজসহ সকল শ্রেনী পেশার মানুষের মাঝে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে। এবিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সহকারী (ভূমি) কমিশনার দেবী চন্দ’র কাছে জানতে চাইলে তিনি  খালটি রক্ষাসহ অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনিয় ব্যাবস্থা গ্রহনের কথা বলেন ।

আরও সংবাদ...

Leave a Reply

Back to top button