গৌরনদী সংবাদ

মালয়েশিয়ায় বিনোদনের ফেরিওয়ালা এস এম রহমান পারভেজ

তার ‘চোখেই’ ঘরে বসে বাংলাদেশকে দেখেন প্রবাসীরা! টেলিভিশনের পর্দায় মালয়েশিয়ায় বসেই মুহূর্তের সব খবরাখবর ছাড়াও দেশি বিনোদন আর সাংস্কৃতির সঙ্গে যুক্ত থাকেন প্রবাসীরা।

দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার এই দেশটিতে অনেকেই তাকে চেনেন বিনোদনের ফেরিওয়ালা হিসেবে। তিনি এস এম রহমান পারভেজ। মালয়েশিয়ায় প্রথম ও একমাত্র বাংলাদেশি টিভি চ্যানেলের পরিবেশক। তার প্রতিষ্ঠান “বিডিটিভি”র মাধ্যমেই মালয়েশিয়ায় বসে দেশের ২২টি জনপ্রিয় টেলিভিশন চ্যানেলসহ বিভিন্ন দেশের ৬০টি টিভি চ্যানেলে বিনোদনের স্বাদ পান প্রবাসীরা।

বরিশালের গৌরনদী থানার লক্ষণকাঠি গ্রামের সন্তান এস এম রহমান পারভেজ। বাবা এস এম ওয়াজেদ আলী। দুই ভাই চার বোনের মধ্যে সবার বড়।

এইচএসসি পরীক্ষা দিয়েই ভাগ্য বদলের আশায় মালয়েশিয়ায় পাড়ি জমান এস এম রহমান পারভেজ। শুরুটা ছিলো সংগ্রাম আর ত্যাগের। নিজের মেধা, পরিশ্রম আর সংগ্রামে ধারাবাহিকতায় মাত্র তিন বছরের ব্যবধানে নিজেকে পরিণত করেন উদ্যোক্তায়। তার পরের ইতিহাসটা কেবলই সাফল্যের।

সূচনাটা দেশ থেকে তৈরি পোশাক শিল্প আমদানি দিয়ে। আবার মালয়েশিয়া থেকে দেশে রফতানি করতেন জাহাজের স্ক্র্যাপ।

এছাড়াও সবজি প্রক্রিয়াজাতকরণ কারখানা প্রতিষ্ঠান মাধ্যমে মালয়েশিয়া থেকে ফলমূল- সবজি রফতানি শুরু করেন সিঙ্গাপুরসহ ইউরোপের বাজারে।

মালয়েশিয়ায় থাকা প্রবাসীদের সমস্যা ও সম্ভাবনার কথা তুলে ধরতে আত্মপ্রকাশ করেন ‘প্রবাসীর কথা’ নামের সাপ্তাহিক পত্রিকার।

নিয়মিত প্রকাশনার মাধ্যমে অল্পদিনেই পত্রিকাটি পরিণত হয় প্রবাসীদের মুখপাত্রে।

সাফল্যের ধারাবাহিকতায় ব্যস্ততম বুকিত বিনতানে গড়ে তোলেন “রসনা বিলাস” নামে দেশি খাবারের রেস্টুরেন্ট।

বৈচিত্র্য আর স্বাদে “প্রকৃতই বাংলার স্বাদ”- এ স্লোগানে এখন মালয়েশিয়ায় জনপ্রিয়তার শীর্ষে রসনা বিলাস।

এস এম রহমান পারভেজ জানান, রসনা বিলাস মালয়েশিয়ায় আজ একটি ব্র্যান্ড। দেশটিতে থাকা প্রবাসীরা এখানে এসে খুঁজে পান বাংলাদেশকে। বেড়াতে আসা বাংলাদেশিদের রসনা বিলাসে এখন অপ্রতিদ্বন্দ্বী রসনা বিলাস।

স্বপ্ন এখন মালয়েশিয়ার পর্যটন এলাকাসহ সিঙ্গাপুরে এ রেস্টুরেন্টের আরেকটি শাখা করা। এস এম রহমান পারভেজ কেবল সফল ব্যবসায়ীই নয়, কমিউনিটি প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি। এছাড়াও বৃহত্তর বরিশাল সমিতি মালয়েশিয়ার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ছাড়াও জাতীয় পার্টি কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ও মালয়েশিয়া জাতীয় পার্টির সভাপতি।

প্রবাসী সাংবাদিক শামছুজ্জামান নাঈম  জানান, এস এম রহমান পারভেজ মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশের গণমাধ্যমে কাজ করা সাংবাদিকদের নিয়ে ২০১০ সালে কমিউনিটি প্রেসক্লাব নামে যে সংগঠন গড়ে তোলেন তা আজ আমাদের গর্ব আর ভালোবাসার ঠিকানা।

এ সংগঠনের জোরেই সাংবাদিকরা আজ প্রবাসীদের দুঃখ দুর্দশা নিয়ে সাহসী প্রতিবেদন তৈরি করছে। এভাবে সুখে দুঃখে প্রবাসীদের পাশে থেকে দেশের সেবা করে যাচ্ছে কমিউনিটি প্রেসক্লাব।

এভাবে কমিউনিটির সেবার মাধ্যমে আগামীতে দেশেই বৃহত্তম পরিসরে দেশের মানুষের সেবা করতে চান এস এম রহমান পারভেজ। আগামী নির্বাচনে বরিশাল-১ (গৌরনদী-আগৈলঝাড়া) থেকে জাতীয় পার্টির টিকেটে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে চান তিনি।

এস এম রহমান পারভেজ  জানান, বিগত নির্বাচনে তিনি জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করেছিলেন তবে দলের সিদ্ধান্তে নির্বাচন থেকে সরে আসেন। তবে এবার এলাকার জনগণের ইচ্ছে আর তাদের ভালোবাসার জন্যেই আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি নির্বাচনে দাঁড়ানো। প্রবাসে থাকলেও হৃদয়ে সব সময় থাকে বাংলাদেশ। অনুভব করি দেশের মাটি ও মানুষের টান।

স্ত্রী তানিয়া রহমান, দুই মেয়ে এক ছেলে নিয়ে সুখের সংসার। কমিউনিটি, ব্যবসা রাজনীতি এতকিছু কিভাবে সামলান কি করে?

“কৃতিত্ব সবটুকু দিতে চাই আমার লাইফ পার্টনার তানিয়া রহমানকে”।

ও আছে বলেই আমি জনগণের জন্য কাজ করতে পারি। ব্যবসার নতুন নতুন সম্ভাবনা নিয়ে ভাবতে পারি- সহাস্য জবাব এস এম রহমান পারভেজের।

সংবাদ সূত্রঃ বাংলানিউজ ২৪


ফেসবুকে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। Gournadi.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে Gournadi.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো পোষ্ট...