খাবারের প্রলোভন দেখিয়ে বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরী ধর্ষণ

খাবারের প্রলোভন দেখিয়ে বরিশালের গৌরনদী উপজেলার চন্দ্রহার গ্রামের শারীরিক ও বুদ্ধি প্রতিবন্ধী এক কিশোরী (১৪)কে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ধর্ষিতার বাবা বাদি হয়ে ধর্ষক লিয়াকত ফকির (৬০)কে আসামি করে বুধবার দুপুরে গৌরনদী থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছে।

পুলিশ তাৎক্ষনিক উপজেলার চন্দ্রহার গ্রামে অভিযান চালিয়ে ধর্ষক লিয়াকত ফকির (৬০)কে গ্রেফতার করেছে। ধর্ষিতা প্রতিবদ্ধীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য বরিশাল শেরে-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে প্রেরন করা হয়েছে।

গৌরনদী মডেল থানার পলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ মাহাবুবুর রহমান জানান, উপজেলার চন্দ্রহার গ্রামের মৃত গনি ফকিরের পুত্র মুদি দোকানদার মোঃ লিয়াকত ফকির (৬০) গত ২৯ মার্চ বেলা ১১টার দিকে খাবারের প্রলোভন দেখিয়ে প্রতিবেশী শারীরিক ও বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী কিশোরী (১৪)কে প্রতিবেশী জাহিদ ফকিরের নির্জন ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করে। পূর্নরায় বৃদ্ধ লিয়াকত ফকির ওই কিশোরীকে খাবারের প্রলোভন দেখিয়ে বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে প্রতিবেশী সাইদুল মোড়লের খালি (লোকশুন্য) ঘরে নিয়ে ওই কিশোরীকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এ সময় ধর্ষিতার মা দেখে ফেললে ডাকচিৎকার দিলে প্রতিবেশীরা ছুটে আসলে ধর্ষক লিয়াকত পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় নির্যাতিতার বাবা বাদি হয়ে বুধবার দুপুরে গৌরনদী মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। থানা পুলিশ তাৎক্ষনিক অভিযান চালিয়ে মামলার প্রধান আসামি লিয়াকত ফকিরকে গ্রেফতার করে। ধর্ষিতা প্রতিবদ্ধীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য বরিশাল শেরে-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে প্রেরন করা হয়েছে।