আন্তর্জাতিক

মিনায় সমবেত হয়েছেন হাজিরা

শুরু হয়েছে ইসলামের চতুর্থ স্তম্ভ হজের আনুষ্ঠানিকতা। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে এহরাম বেঁধে লাব্বাইক, আল্লাহুম্মা লাব্বাইক ধ্বনিতে মক্কা থেকে মিনার উদ্দেশ্যে যাত্রা করেছেন ২০ লাখেরও অধিক হজযাত্রী। মূলত বুধবার সন্ধ্যা থেকেই মক্কা থেকে ১০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্বে মিনার উদ্দেশ্যে তাদের যাত্রার প্রস্তুতি শুরু হয়।

হজযাত্রীদের স্বাচ্ছন্দ্য নিশ্চিত করতে ব্যাপক পদক্ষেপ নিয়েছে সৌদি সরকার।

হজযাত্রীদের জন্য এরই মধ্যে প্রয়োজনীয় তাঁবু স্থাপন করেছে ট্রাফিক পুলিশ, সরকারি ও বেসরকারি নিরাপত্তাকর্মী, হজ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা, চিকিৎসক, নার্স ও গণমাধ্যম।

বৃহস্পতিবার মিনায় যাওয়ার আগে সেলাইবিহীন দুটি কাপড়ের টুকরো পরিধান করে ইহরাম বাঁধবেন পুরুষ হাজিরা। পুরুষ ও নারীদের জন্য ইহরাম আলাদা।

মিনায় পাঁচ ওয়াক্ত কসর নামাজ আদায় করে শুক্রবার সকাল পর্যন্ত সেখানে অবস্থান করবেন হাজিরা। শুক্রবার ফজরের পর তারা আরাফাতের উদ্দেশ্যে যাত্রা করবেন।

শুক্রবার আরাফাতে হজের খুতবা শুনবেন হাজিরা। তারা এক আযানে জুমা ও আসরের (জুহরাইন) নামাজ আদায় করবেন। সূর্যাস্তের পর তারা মুজদালিফার উদ্দেশ্যে আরাফাতের ময়দান ত্যাগ করবেন।

মুজদালিফায় আবারও এক আজানে মাগরিব ও এশার সালাত আদায়ের পর সেখান থেকে জামারায় (প্রতীকী শয়তান) নিক্ষেপের জন্য পাথর সংগ্রহ করবেন।

মুজদালিফায় খোলা আকাশের নিচে রাতযাপনের পর ১০ জিলহজ (শনিবার) সকালে সূর্য উদয়ের পর জামারায় পাথর নিক্ষেপের জন্য রওনা হবেন হাজিরা। সূর্য পশ্চিম দিকে হেলে যাওয়ার পূর্বে (দুপুরের আগে) জামারাতুল আকাবায় (বড় শয়তান) ৭টি পাথর নিক্ষেপ করবেন হাজিরা।

জামরাতুল আকাবায় পাথর নিক্ষেপের পর আল্লাহ তাআলার সন্তুষ্টির জন্য হাজিরা পশু কুরবানি করবেন। এরপর মাথা মুণ্ডন করে ইহরাম খুলে পোশাক পরবেন হাজিরা।

পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখাওয়া থেকে এবার হজে গেছেন ৬৯ বছরের মাওলানা মিনহাজ আকরাম। মক্কা থেকে আরব নিউজকে তিনি বলেন, ‘বৃহস্পতিবার ফজরের পর আমাদের বাসকে মিনার উদ্দেশ্যে রওয়ানা করতে বলা হয়েছে।’

ভারতের রাজস্থানের জয়পুর থেকে সস্ত্রীক হজে এসেছেন লতিফ মোহাম্মদ জাগিরদার। হজব্রত পালনে পবিত্র নগরীতে আসতে পেরে তারা খুব খুশি।

এ বছর বাংলাদেশ থেকে হজ করতে গেছেন ৯৮ হাজার ৬০৫ জন হাজি। সরকারি সূত্র জানিয়েছে, বেশির ভাগ হাজি সুস্থ আছেন ও নির্বিঘ্নে হজের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করছেন।

সূত্র: আরব নিউজ, সরকারি ওয়েবসাইট, বাংলা ট্রিবিউন


ফেসবুকে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। Gournadi.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে Gournadi.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো পোষ্ট...