গৌরনদী সংবাদ

৭১’র ন্যায় সহযোগীতার দাবি, গৌরনদীতে মোদিকে স্বাগত জানিয়ে মুক্তিযোদ্ধাদের মিছিল

বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে ভারত যেভাবে এদেশকে সহযোগীতা করেছেন। তাতে করে ভাবতের ঋণ কোনভাবেই শোধ করবার নয়। ঠিক সেইভাবেই ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র দামোদর মোদি, পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে তিস্তাচুক্তিসহ সবধরনের সহযোগীতা চেয়েছেন বীর মুক্তিযোদ্ধারা।


শনিবার সকালে মোদি ও মমতার ঢাকা সফর উপলক্ষ্যে স্বাগত জানিয়ে বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের গৌরনদী বাসষ্ট্যান্ডে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের উদ্যোগে মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি পর্যায়ক্রমে মহাসড়কের আশোকাঠী, কাছেমাবাদ, মাহিলাড়া ও বাটাজোর বাসষ্ট্যান্ড প্রদক্ষিণ করে। শেষে আধুনা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে মুক্তিযোদ্ধা সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সরিকল ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আব্দুর রহিমের সভাপতিত্বে সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার শেখ মো. কুতুব উদ্দিন।

প্রধান বক্তা ছিলেন যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ও গৌরনদী উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার সৈয়দ মনিরুল ইসলাম বুলেট ছিন্টু। বিশেষ অতিথি ছিলেন মহানগর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের মহাসচিব মোকলেচুর রহমান, আনিচুর রহমান, আব্দুল হক-বীর বিক্রম।

বক্তব্য রাখেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মুনসুর আলী সিপাহী, আলী আকবর মোল্লা, বার্থী ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মাষ্টার আব্দুল হালিম, চাঁদশী ইউনিয়ন কমান্ডার মাষ্টার মো. শাহ আলম, খাঞ্জাপুর ইউনিয়ন কমান্ডার জাহাঙ্গীর হোসেন হাওলাদার, মাহিলাড়া ইউনিয়ন কমান্ডার হাফিজুর রহমান, নলচিড়া ইউনিয়ন কমান্ডার খন্দকার মো. ইউনুস, বাটাজোর ইউনিয়ন কমান্ডার আ. কাদের হাওলাদার প্রমুখ।

সমাবেশে বক্তারা ভারতের প্রধানমন্ত্রী ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীর কাছে তিস্তাচুক্তিসহ সবধরনের সহযোগীতা কামনা করেছেন।


ফেসবুকে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। Gournadi.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে Gournadi.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো পোষ্ট...

Leave a Reply