গৌরনদী সংবাদ

অবশেষে ভাষা সৈনিক মাহবুব তোরণ অপসারণ

গৌরনদী উপজেলা সদরে ভাষা সৈনিক কাজী গোলাম মাহবুবের নামে নির্মিত তোরণটি ভেঙে সরিয়ে ফেলা হয়েছে। এছাড়া কাজী গোলাম মাহবুব চত্বরের সামনের অংশের গ্রিল খুলে ফেলা হয়েছে। ভাষাসৈনিকের পরিবার ও কাজী গোলাম মাহবুব ফাউন্ডেশনের অভিযোগ, রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণেই তোরণটি ভাঙা হয়েছে।

স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ভাষা আন্দোলনের সর্বদলীয় রাষ্ট্রভাষা সংগ্রাম পরিষদের আহ্বায়ক ছিলেন কাজী গোলাম মাহবুব। তাঁর স্মৃতি রক্ষায় স্থানীয় লোকজনের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে গৌরনদী উপজেলা পরিষদের প্রধান সড়কে ২০০২ সালে ভাষাসৈনিক কাজী গোলাম মাহবুব তোরণ নির্মাণ করা হয়। আর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) কার্যালয় চত্বরকে ভাষাসৈনিক কাজী গোলাম মাহবুব চত্বর করা হয়। সেখানে একটি আধুনিক শহীদ মিনার নির্মাণ করা হয়।

উপজেলা পরিষদ সূত্র জানান, ২০০৭ সালের জানুয়ারিতে উপজেলা উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সভায় উপজেলা চত্বরকে ভাষাসৈনিক কাজী গোলাম মাহবুব চত্বর করার অনুমোদন দেওয়া হয়। পরে এই সিদ্ধান্তটি জেলা প্রশাসন হয়ে অনুমোদনের জন্য স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়। মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগ উপ-২ শাখা ওই বছরের ৮ মে প্রস্তাবটি অনুমোদন করে।

ভাষাসৈনিকের পরিবারের একজন সদস্য অভিযোগ করেন, ২০০৮ সালে নির্বাচনের পরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের কার্যক্রম স্থগিত করা হয়। পরে কাজী গোলাম মাহবুব চত্বর ও তোরণটি সরানোর প্রক্রিয়া শুরু হয়। গত দুই দিনে তোরণটি ভেঙে ফেলা হয়েছে। চত্বরের অনেকাংশের গ্রিল খুলে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

তোরণ ভাঙায় নিয়োজিত শ্রমিক মো. আলী হোসেন বলেন, আওয়ামী লীগ নেতা মো. আলাউদ্দিন ভূঁইয়ার নির্দেশে তাঁরা কাজটি করছেন। উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মো. আলাউদ্দিন ভূঁইয়া বলেন, ঠিকাদারি মালামাল পরিবহনের সুবিধার্থে গেটটি ভাঙা হয়েছে। পরে আরও উন্নত গেট করে দেওয়া হবে। তিনি দাবি করেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে (ইউএনও) লিখিত অঙ্গীকার দিয়ে তোরণটি ভাঙা হয়েছে।

তবে ইউএনও মোহাম্মদ মাসুদ হাসান পাটোয়ারী বলেন, ‘আমার কাছে কেউ লিখিত দেননি। গেট ভাঙার বিষয়ে সহকারী কমিশনার (ভূমি) তানিয়া আফরোজকে প্রধান করে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।’

ভাষাসৈনিক কাজী গোলাম মাহবুব ফাউন্ডেশনের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান ও গৌরনদী পৌরসভার সাবেক মেয়র মো. নুর আলম হাওলাদার বলেন, রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে কাজী গোলাম মাহবুবের নাম মুছে ফেলতে তোরণটি ভাঙা হয়েছে।


ফেসবুকে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। Gournadi.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে Gournadi.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো পোষ্ট...

Leave a Reply