লাইফ ও সাইন্স

প্রেমের সম্পর্কে ছেলেরা যে ভুলগুলো করে থাকে!

অনেকেই মনে করেন যে ছেলেরা প্রেমের সম্পর্কটাকে ছেলেখেলা হিসেবে নিয়ে থাকেন। হয়তো কিছু কিছু পুরুষ আসলেই প্রেমের সম্পর্কে খারাপ মতলবে জড়িয়ে থাকেন, কিন্তু তাই বলে পুরো পুরুষ জাতিই তো এমনটা নন। ভুলটি আসলে অন্য ধরনের হয়ে থাকে। ছেলেরা এমন কিছু কাজ করেন যা মেয়েদের মনে ভুল ধারণার জন্ম দেয় যে তিনি সম্পর্কটিকে গুরুত্ব সহকারে দেখছেন না। কিন্তু প্রকৃতপক্ষে হয়তো ছেলেটি সম্পর্কটির ব্যাপারে সিরিয়াস।

ছেলেদের কিছু ভুল রয়েছে অবশ্যই। একটি সম্পর্ককে গুরুত্ব দিলে সঙ্গিনীকে গুরুত্ব দিতে হবে, তার সাথে সম্পর্কিত সব কিছুকেই গুরুত্ব দিতে হবে। কিছু ভুল রয়েছে যা করা যাবে না একেবারেই। এতে করে আপনার সঙ্গিনী বুঝবেন যে আপনি সত্যিকার অর্থেই সম্পর্কের ব্যাপারে সিরিয়াস।

নিজের ব্যক্তিত্ব ধরে রাখতে না পারা

একজন পুরুষকে তার সৌন্দর্য দিয়ে নয় তার ব্যক্তিত্ব দিয়ে বিচার করা হয়ে থাকে। ব্যক্তিত্ববান পুরুষ সকলের কাছেই বেশ আকর্ষণীয়। কিন্তু সমস্যা হলো অনেক ছেলেই সম্পর্কে জড়ানোর পর নিজের ব্যক্তিত্ব ধরে রাখতে পারেন না। হয়তো দেখা যায় একেবারে সঙ্গিনীর কথার গোলাম হয়ে গেলেন অথবা এতো বেশি রূঢ় হয়ে যান যে নিজের চরিত্রিক বৈশিষ্ট্য ঠিকমতো ফুটিয়ে তুলতে পারেন না। এতে করে মেয়েরা মনে করেন ছেলেটি সম্পর্কের ব্যাপারে একেবারেই গুরুত্ব দিচ্ছেন না। রূঢ় হয়ে গেলে ভাবেন এতো খুঁচিয়ে কথা বের করতে হয়, কিছু জিজ্ঞেস করা যায় না এমন হলে কিভাবে চলে। আর উল্টোটা হলে মনে করেন নিজের কোনো ইচ্ছাই প্রকাশ করেন না, সব সময় সব কিছু মেনে নেয়, এইধরনের ছেলে দিয়ে কি হবে। সুতরাং নিজের ব্যক্তিত্বটা ঠিকমতো প্রকাশ করার চেষ্টা করুন।

সঙ্গিনীর সকল কাজে খবরদারী করা প্রেমের শুরু থেকে

অনেক ছেলেই রয়েছেন সম্পর্কে জড়ানো মাত্রই নিজের সঙ্গিনীর সকল কাজে এবং সকল কিছুতে খবরদারী শুরু করেন। এই কাজটি ভুলেও করতে যাবেন না। বিশেষ করে সম্পর্কের একেবারেই শুরুতে। এতে করে সম্পর্কের শুরু থেকেই আপনার সঙ্গিনী ভাববেন আপনি তাকে বিশ্বাস করতে পারছেন না। প্রথমে আপনার সঙ্গিনীকে আপনার সাথে মানিয়ে চলার কিছুটা সময় দিন। তাকে বিশ্বাস করুন। এমনিতেও সঙ্গীর জীবনে খুব বেশী খবরদারী করা সম্পর্কের যে কোনো সময়ের জন্যই খারাপ। তবে কিছুটা খোঁজ খবর রেখে বাকিটা বিশ্বাসের ওপর ভরসা করে ছেড়ে দিলে সম্পর্কে গভীরতা আসে।

সঙ্গিনীকে সময় দিতে না পারা

সম্পর্কে জড়ানোর পর থেকেই যদি আপনি আপনার সঙ্গিনীকে সময় দিতে না চান কিংবা না পারেন তবে আপনার সম্পর্কে তার ভুল ধারণা জন্মানো স্বাভাবিক। আপনি যেহেতু তাকে আপনার জীবনের সাথে জড়িয়ে নিয়েছেন তবে আপনার উচিত তাকে তার প্রাপ্য মূল্য দেয়া। তার সাথে যতোটা সম্ভব সময় কাটানো। নিজের সব কাজ বাদ দিয়ে সময় দেবেন তা নয়, কিন্তু যতোটা দেয়া উচিৎ তাও না দিতে পারাও ভালো নয়। সঙ্গিনীকে সময় দিন।

সঙ্গিনীর বন্ধুবান্ধবের সম্পর্কে বাজে মন্তব্য করা

নিজের সঙ্গিনীর বন্ধুবান্ধব সম্পর্কে বাজে মন্তব্য করা অনেক বড় একটি ভুল। হতে পারে আপনি আপনার সঙ্গিনীর বন্ধুবান্ধবকে একেবারেই পছন্দ করেন না কিংবা তাদের কারো সাথে আপনার সম্পর্ক খারাপ। কিন্তু তাই বলে তাদের সম্পর্কে নিজের সঙ্গিনীর কাছে বাজে মন্তব্য করে আপনি আপনার সম্পর্কটিকে হুমকির মুখে ফেলছেন। এবং এতে করে আপনার ব্যক্তিত্বও নষ্ট হচ্ছে। এই ভুল কাজটি থেকে দূরে থাকুন।

লেখা : প্রিয়.কম


ফেসবুকে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। Gournadi.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে Gournadi.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

Tags

আরো পোষ্ট...