গৌরনদী সংবাদ

গৌরনদীর রাজনীতিতে সক্রিয় আ.লীগ, গতিহীন বিএনপি, নিরবে সক্রিয় জামাত, হতাশায় জাপা

জাতীয় সংসদের বরিশাল- ১ আসন বরিশালসহ গোটা দক্ষিণাঞ্চলের রাজনৈতিক দুয়ার বলে খ্যাত। এ সংসদীয় আসন গৌরনদী -আগৈলঝাড়া উপজেলা নিয়ে গঠিত। এরশাদ সরকারের শাসনামলে অবিভক্ত গৌরনদী থানাকে ভেঙ্গে দুটি উপজেলা করা হয়। এরই একটি জনগুরুত্বপূর্ন এলাকা গৌরনদী। বর্তমানে এ এলাকার নিস্তরঙ্গ রাজনীতিতে সক্রিয় প্রভাবে এগিয়ে চলছে আঃ লীগ, গতিহীন হয়ে পড়েছে বিএনপি আর নীরবে সক্রিয় জামায়াত এবং হতাশায় ভুগছে জাতীয় পার্টি।

স্বাধীনতার পর থেকে বিভিন্ন কারণে এ এলাকায় আঃ লীগকে চ্যালেঞ্চের মুখে ফেললেও সাবেক কৃষি মন্ত্রী শহীদ আব্দুর রব ছেরনিয়াবাদের উত্তরসূরি বর্তমান সাংসদ সাবেক চীফ হুইপ আবুল হাসানাত আবদুল্লাহর গঠন মূলক চিন্তাকর্ষনের ভিতর দিয়ে সক্রিয়ভাবে এগিয়ে চলছে গৌরনদীতে আঃ লীগের রাজনীতি। তারাই ধারাবাহিকতায় তরুণ রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব বর্তমান গৌরনদী পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আঃ লীগের সাধারণ সম্পাদক হারিছূর রহমান সম-মূল্যায়নের মাধ্যমে দলকে সুসংগঠিত করার প্রত্যয় নিয়ে গৌরনদীতে শান্তিপ্রিয় রাজনীতির সহাবস্থানের চেষ্টা চালাচ্ছেন এবং তিনি এতে সফলতাও পেয়েছেন। আর সে কারণেই কতিপয় সাইনবোর্ডধারী স্বার্থান্বেষী মহল তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন ষড়যন্ত্র ও মিথ্যা প্রপাগাণ্ডা ছড়াচ্ছে। সূত্রটি আরও জানায় এ ষড়যন্ত্রকারীদের চিহ্নিত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা না নিলে এরা সুযোগ পেলে হাসানাত ভাইর বিরুদ্ধেও ষড়যন্ত্র করে।

এ ব্যাপারে উপজেলা আঃ লীগের সাধারণ সম্পাদক ও গৌরনদী পৌর মেয়র হারিছুর রহমান জানান, আমার একটাই উদ্দেশ্য দলকে সুসংগঠিত করে একটি গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় রাজনৈতিক সহবস্থানের মাধ্যমে হাসানাত ভাইর হাতকে শক্তিশালী করে এলাকার সার্বিক উন্নয়নের মাধ্যমে গৌরনদীকে একটা মডেল পৌরসভা ও মডেল উপজেলা করা, এর বাইরে আমার ভাবার কিছু নেই।

উপজেলা আঃ লীগের সভাপতি প্রবীণ রাজনৈতিক জয়নাল আবেদীন জানান, দু-একটি বিক্ষিপ্ত ঘটনা ছাড়া আমরা সুন্দর ও সহাবস্থানে রাজনীতি করছি।

আন্দোলন থেকে গুটিয়ে যাওয়ার পর দ্বিধাবিভক্ত হয়ে পড়েছে গৌরনদী বিএনপি। গৌরনদী বিএনপির রাজনীতি ১/১১ পর থেকেই বিচ্ছিন্নভাবে চলছে এ জন্য তৃনমূলরা কেন্দ্রকেই দায়ী করছেন। কেননা সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী বাছাইয়ের ভুল সিদ্ধান্তের কারণেই গৌরনদী বিএনপির হযবরল অবস্থা। এখানে সংস্কার আর অসংস্কার পন্থিদের রশি টানাটানি থাকলেও দলীয় কোন প্রোগ্রামে দেখা যায়নি কাউকে।

সূত্রমতে তৃনমূল নেতাকর্মীদের দিক নির্দেশনা না দিতে পাড়া আন্দোলনে শীর্ষ স্থানীয় নেতারা না থাকায় তৃণমূলরা কোন কর্মসূচীতে অংশগ্রহণ করতে পারছে না। যে কারণে থমকে আছে দলের কার্যক্রম। এলাকার তৃনমূল নেতা কর্মীদের দাবী এখানে সাবেক সংসদ সদস্য এম জহির উদ্দিন স্বপনই পারে বিএনপির পুরানো ইমেজ তৈরি করতে। তার শূন্যতায় গৌরনদী বিএনপিকে অনিশ্চয়তায় ফেলে দিতে পারে বলেও তারা শঙ্কা প্রকাশ করেছেন।

এ ব্যাপারে গৌরনদী উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সরকারী গৌরনদী কলেজ বিশ্ব বিদ্যালয়ের সাবেক ভিপি জাকির হোসেন রাজা বলেন, আমরা গৌরনদীতে ঐক্যবদ্ধ বিএনপি চাই আর ঐক্য ও সাংগঠনিক কাঠামো ফিরিয়ে আনতে হলে সাবেক এমপি এম জহির উদ্দিন স্বপনের বিকল্প নেই।

উপজেলা বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতি প্রবীণ রাজনৈতিক মাষ্টার গোলাম হোসেন বলেন, গৌরনদী বিএনপিকে ঐক্যবদ্ধ হতে হলে সাবেক এমপি এম জহির উদ্দিন স্বপন ও বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ইঞ্জিনিয়ার আবদুস ছোবাহানকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে আর তা না হলে নিশ্চিত বিএনপির সংসদীয় এ আসনটি হাতছাড়া হয়ে যাবে।

গৌরনদী জাতীয় পার্টির লেজেগোবরে অবস্থা এরশাদ সরকারের পতনের পর থেকে জাতীয় পার্টি শূন্য অবস্থানে পৌছায়, এর কারণ হলও যারা এরশাদ সরকারের আমলে দোর্দণ্ড প্রভাব নিয়ে এলাকা নিয়ন্ত্রণ করতেন তারাই আবার এরশাদ সরকারের পতনের পর অধিকাংশরা বিএনপির কাণ্ডারি হয়েছেন। শত প্রতিকূলতার মাঝে সম্প্রতি বিলুপ্তপ্রায় জাতীয় পার্টির হাল ধরেন মালয়েশিয়া প্রবাসী ব্যবসায়ী ও মালায়েশিয়া প্রেস ক্লাবের সভাপতি জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য গৌরনদী উপজেলার বাটাজোর এলাকার বাসিন্দা এস এম রহমান পারভেজ জাতীয় পার্টিকে সুসংগঠিত করার জন্য নিষ্ঠার সাথে কাজ করলেও স্থানীয় নেতৃত্ব অপ্রতুলতা থাকায় দলকে ঢেলে সাজানোর পরামর্শ দিয়েছেন স্থানীয় ত্যাগী নেতা কর্মীরা।

এ ব্যাপারে পারভেজ বলেন, স্থানীয়ভাবে দলে কোন অপ্রতুলতা নেই দলের অবস্থা এখন অনেক ভালো আমি নিজে সার্বক্ষণিক এলাকায় দলের কার্যক্রম মনিটরিং করছি।

গৌরনদীতে জামায়াতের প্রকাশ্য কোন কার্যক্রম দেখা না গেলেও নীরবে তাদের কার্যক্রম চলছে সক্রিয়ভাবে। সূত্রমতে গৌরনদী উপজেলার অধিকাংশ মসজিদের ইমাম জামায়াতের লোক হওয়ায় তাদের দলীয় কার্যক্রম চালাতে কোন বেগ পেতে হচ্ছে না।

এ ব্যাপারে গৌরনদী উপজেলা জামায়াতের আমীর ডাঃ সরোয়ার আলম বলেন আমরা হতাশাগ্রস্ত নই আমরা সাংগঠনিক ভাবে আশাবাদী।

আরও সংবাদ...

Leave a Reply

Back to top button