বরিশাল

আগৈলঝাড়ায় নির্বাচনী সংহিংসতায় এবার অগ্নিসংযোগ আতঙ্ক

আগৈলঝাড়া প্রতিনিধি:পুলিশের সদর দপ্তরের বির্পোট অনুযায়ী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে সারাদেশের মধ্যে সহিংস ঘটনায় এক নাম্বারে রয়েছে বরিশাল অঞ্চল। নির্বাচনের দিন যতোই ঘনিয়ে আসছে ততোই এ অঞ্চলে বৃদ্ধি পাচ্ছে হামলা ও সংঘর্ষের ঘটনা।
সূত্রমতে, গত তিনদিনের ব্যবধানে এবার এ অঞ্চলে বেশি সংখ্যালঘু অধুষ্যিত বরিশাল জেলার আগৈলঝাড়ায় আগুন সন্ত্রাসের নয়া আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। এলাকার সংখ্যালঘু স¯প্রদায়ের মাঝে আতঙ্ক সৃষ্টির লক্ষে রাতের আধাঁরে অজ্ঞাতনামা সন্ত্রাসীরা ইতোমধ্যে তিনটি ঘরসহ ছয়টি খড়ের গাঁদায় অগ্নিসংযোগ করে ভস্মিভূত করে। এ ঘটনায় পুরো আগৈলঝাড়া উপজেলায় চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে। প্রতিটি ঘটনার পর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করলেও আজো আগুন সন্ত্রাসের সাথে জড়িতদের সনাক্ত কিংবা গ্রেফতার করতে পারেনি। সর্বশেষ শুক্রবার (১৮ মার্চ) রাতে উপজেলা সদর সংলগ্ন গৈলা ইউনিয়নের পশ্চিম সুজনকাঠী গ্রামের মৃত সদানন্দ রায়ের পুত্র সুভাষ রায়ের বসত ঘরে অগ্নিসংযোগ করে অজ্ঞাতনামা সন্ত্রাসীরা। এরপূর্বে গত ১৫ মার্চ রাতে একইগ্রামের পরিমল করের দুটি ঘরে অগ্নিসংযোগ করে দূর্বৃত্তরা। এসময় তার দুটি খড়ের গাঁদায় আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়। ১৭ মার্চ দিবাগত রাতে একই গ্রামের বাদল করের একটি, মহেন্দ্র মল্লিকের একটি, রাম মোহন সরকারের একটি ও সমির রায়ের একটি খড়ের গাঁদায় আগুন ধরিয়ে দিয়ে ভস্মিভূত  করেছে আগুন সন্ত্রাসীরা। ওই ইউনিয়নের নৌকা মার্কার প্রার্থী শোয়েব ইমতিয়াজ লিমন অভিযোগ করেন, জামায়াত ও বিএনপির সন্ত্রাসীরা তার সমর্থক হিন্দু ভোটারদের মাঝে আতঙ্ক সৃষ্টির লক্ষে রাতের আধাঁরে আগুন সন্ত্রাসে মেতে উঠেছে।
অপরদিকে একই উপজেলার বাকাল ইউনিয়ন পরিষদের স্বতন্ত্র নারী চেয়ারম্যান প্রার্থী লাবন্য আক্তার তালুকদার (ঘোড়া) অভিযোগ করেন, তার জনপ্রিয়তায় ঈশ্বানিত হয়ে গত দু’দিনে নৌকা মার্কার প্রার্থী বিপুল দাসের সমর্থক শহীদ পাইক ও জাকির পাইকের নেতৃত্বে বহিরাগত ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীরা ১৫/২০টি মোটরসাইকেলে মহড়া দিয়ে তার ২০জন সমর্থককে মারধর করে গুরুতর আহত করেছে। সর্বশেষ শুক্রবার সন্ধ্যায় ও দুপুরে ঘোড়া মার্কার সমর্থনে গণসংযোগের সময় ওই সন্ত্রাসীরা কোদালধোয়া বাজারে বসে প্রকাশ্যে হামলা চালিয়ে তার ১০জন সমর্থককে আহত করে। এরমধ্যে গুরুতর আহত নারায়ন মল্লিক, স্বপন জয়ধর, নরোত্তম, লিটন হালদার ও মনিমোহন হালদারকে বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।


ফেসবুকে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। Gournadi.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে Gournadi.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো পোষ্ট...

Leave a Reply