বরিশাল

মুক্তিযোদ্ধা সাহেব আলী ফকিরকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদা ছাড়াই দাফন করা হলো

প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা হয়েও শুধুমাত্র তালিকাভুক্ত না হওয়ার কারণে গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে রাষ্ট্রীয় মর্যাদা ছাড়াই দাফন করা হয়েছে বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার বাকাল গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ সাহেব আলী ফকিরের (৭০) লাশ। ফলে ওই এলাকার সাধারন মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

জানা গেছে, গৌরনদী বাসষ্ট্যান্ড সুপার মার্কেটের মেসার্স আহমেদ টেড্রার্সের স্বত্তাধীকারী মুক্তিযোদ্ধা সাহেব আলী ফকির বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল দশটায় বাকাল গ্রামের নিজবাড়িতে ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহির…রাজিউন)। তিনি স্ত্রী, ২ পুত্র, ১ কন্যাসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন, বন্ধু-বান্ধব রেখে গেছেন। ওইদিন বিকেলে মরহুমের জানাজা শেষে পারিবারিক গোরস্তানে দাফন করা হয়।

মুক্তিযোদ্ধার পুত্র ইমতিয়াজ আহম্মেদ কোরাইশী সোহাগ জানান, তার বাবা একজন প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা হয়েও দীর্ঘদিন থেকে তালিকাভুক্ত হওয়ার জন্য স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের নেতৃবৃন্দের কাছে আবেদন-নিবেদন করেও তালিকাভুক্ত হতে পারেননি। ফলে মৃত্যুর পর তার বাবার ভাগ্যে রাষ্ট্রীয় মর্যাদা জোটেনি।

আগৈলঝাড়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আইউব আলী মিয়া বলেন, সাহেব আলী ফকির একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। তার আবেদনের কাগজপত্র দীর্ঘদিন পূর্বে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করা হয়েছে।
উল্লেখ্য, মুক্তিযোদ্ধা সাহেব আলী ফকির ইটালী রোম সিটির ১১ নাম্বার ওয়ার্ডের নির্বাচিত কাউন্সিলর ও ইটালী আ’লীগ শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল ইসলাম দিলীপের শশুড়।

সাহেব আলী ফকিরের মৃত্যুতে আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ-এমপি, এ্যাডভোকেট তালুকদার মোঃ ইউনুস-এমপি, এ্যাডভোকেট বলরাম পোদ্দার, জহির উদ্দিন স্বপন,  গভীর শোক ও শোকার্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।


ফেসবুকে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। Gournadi.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে Gournadi.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

Tags

আরো পোষ্ট...